প্রচ্ছদ

১৮ মাসের শিশু ইয়াসিনকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

Eurobanglanews24.com

 

শরিফুল ইসলামঃ ১৮ মাসের নিষ্পাপ অবুঝ শিশু ইয়াসিন। অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে। হার্টের ছিদ্র থাকায় ইয়াসিন জন্মের পর থেকেই অসুস্থ। ইয়াসিনের বাবা সোনাউল্লা একজন খেটে খাওয়া শ্রমিক। যিনি দিন এনে দিন খায়। দরিদ্র সালমা বেগমের কোলেই যেন ইয়াসিনের একমাত্র ভরসা। দরিদ্রতার কারণে ইয়াসিনের পিতা-মাতা পরিপূর্ণরূপে চিকিৎসা করাতে পারছেন না। তাই ১৮ মাস বয়সী ইয়াসিন এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে রয়েছে। শিশুটির চোখেমুখে শুধুই বাঁচার আকুতি।

ইয়াসিনের বাবা সোনাউল্লা লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা ৩ নং ইউনিয়নের ৪ নং দক্ষিণ ঘনেশ্যাম গ্রামের বাসিন্দা।
দুই মেয়ে এবং এক সন্তানের বাবা তিনি। ইয়াসিন তাদের একমাত্র পুত্র সন্তান। সে জন্মের পর থেকেই অসুস্থতায় ভুগছে। ইয়াসিনের চিকিৎসায় যেটুকু সহায় সম্বল ছিল তা নিঃশেষ হয়ে গেছে। আজ হতাশা তাকে চারিদিক হতে ঘিরে ফেলেছে। একমাত্র পুত্র সন্তান ইয়াসিনকে বাঁচাতে পারবেন কি? এমনি প্রশ্নে তিনি আজ হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন।

রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ বিকাশ মজুমদারের চিকিৎসাধীনে রয়েছেন। শিশুকে বাঁচাতে একটি অপারেশন প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। এ অপারেশন করতে ৪/৫ লাখ টাকার প্রয়োজন বলেও জানিয়েছেন। দরিদ্রতার কষাঘাতে ইয়াসিনের সঠিক চিকিৎসার খরচ জোগাতে পারছে না তার পরিবার।

এ বিষয়ে ইয়াসিনের মা দৈনিক মুক্তিকে বলেন, আমার একমাত্র পুত্র সন্তান ইয়াসিনকে বাঁচাতে কি পারব না। সরকার নাকি চিকিৎসা করাতে মানুষক সাহায্য করে। মুই কি মোর ছাওয়াটাক বাঁচাতে পাইম না। কান্না জনিত কন্ঠে এমনি ভাবে বলেন, সালমা বেগম। তিনি ইয়াসিনকে বাঁচাতে সমাজের সকল বিত্তবান ও দানশীল মানুষের একটু আর্থিক সাহায্য ও সহানুভুতি কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য হিমাংশু শেখর বল্টু বলেন, শিশুটি আমার ওয়ার্ডের। বিষয়টি আমি অবগত আছি। আমি সাধ্যমত চেস্টা করব।

নিষ্পাপ এ অবুঝ শিশুর কি অপরাধ । যে এ অল্প সময়েই পৃথিবীর আলোতে এসে এভাবেই ঝরে যাবে আবার এ পৃথিবী ছেড়ে। আমরা কি পারি না একটু সহায়তা করে একটু সহানুভুতি দেখাতে। যারা শিশুটিকে আর্থিক সহায়তা পাঠাতে চান ও যোগাযোগ করতে চান মা সালমা বেগমের বিকাশ ০১৭৮০৯৪১৯৬৮
সহায়তা পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

বিনোদন

আর্কাইভ

February 2020
M T W T F S S
« Jan    
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829