প্রচ্ছদ

যানজট এড়িয়ে চলার সহজ কিছু উপায়

Eurobanglanews24.com

প্রাণের শহর ঢাকাতে থাকতে যেয়ে প্রতিদিনই যানজটের কারণে অপচয় করছেন আপনার জীবনের সবচেয়ে মুল্যবান জিনিস সময়।

 

রাজধানী ঢাকায় শুধু মাত্র জ্যামের জন্য প্রতিদিন আমাদের অপচয় হচ্ছে প্রায় ৩২ লাখ কর্মব্যস্ত ঘন্টা।

 

না চাইলেও কিছু করার নেই। এই জ্যাম তো এখনকার নিত্যনৈমিত্তিক বিষয়, একে মেনে নিতেই তো হবে। ঢাকা শহরে থাকতে গেলে জ্যাম আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়েই থাকবে, তবুও এই ঢাকাতে থেকেই ঢাকার এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় যেতে কীভাবে আমরা জ্যামটুকু কতোটা সংক্ষিপ্ত করতে পারি, চলুন সে সম্পর্কে আজকে আমরা কিছু ধারণা নিই-

 

 

 

> প্রথমেই বলবো আপনারা যদি হাঁটা দুরত্বে আপনাদের অফিস, কলেজ ভার্সিটি ইত্যাদি থেকে আপনাদের বাসাটা রাখেন সেক্ষেত্রে কিন্তু অনায়াসেই জ্যামকে অতিক্রম করে সোজা হেঁটে হেঁটে চলে যেতে পারেন আপনাদের অফিস, কলেজ, ভার্সিটি ইত্যাদিতে।

 

> ঢাকার বাইরে বা ঢাকার আশেপাশে কোনো শিডিউল রাখতে চান, সুন্দর ভাবে ট্রেন এ চড়ে খুব কম সময়ের মধ্যে চলে যেতে পারেন।

 

এ ক্ষেত্রে এয়ারপোর্ট টু জয়দেবপুর, কমলাপুর টু জয়দেবপুর, কমলাপুর টু এয়ারপোর্ট, কমলাপুর টু রাজেন্দ্রপুর, কমলাপুর টু শ্রীপুর এই রুটে ট্রেন পাবেন খুব সহজে বিভিন্ন সময়ে।

 

> ঢাকার এক মাথা থেকে আরেক মাথায় যাবেন? ভোরে উঠে কস্ট করে রওনা দিয়ে দেন। জ্যাম আপনাকে কোনোভাবেই পাবে না। বরংচ ঠান্ডা ঠান্ডা হিমেল বাতাসে ভোরের যাত্রাটাও হবে আরামদায়ক।

 

 

 

> চাইলে নদীপথেও যাত্রা করতে পারেন ঢাকার এক মাথা থেকে আরেক মাথায়। টঙ্গী তুরাগ থেকে বালুর নদের মাঝ দিয়ে সুন্দর ভাবে বুড়িগঙ্গায় যেয়ে সদরঘাট থামতে পারেন, এ রুটে যাত্রাটা অবশ্য বর্ষা মৌসুমেই ঠিক। সহজে তখন ট্রলার ভাড়াও করতে পারবেন।

 

পরিশেষে,  চলাচলের সময় ট্রাফিক নিয়ম মেনে চলুন, এবং অবশ্যই রাস্তা পারাপারের সময় ফুট ওভার ব্রিজ ব্যবহার করুন।

 

ভালো থাকুন, সুস্হ থাকুন। জীবনটাকে উপভোগ করুন।

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০