প্রচ্ছদ

ডায়াবেটিস রোগীরা কি রক্ত দিতে পারবেন?

Eurobanglanews24.com

অসুস্থ মানুষের জীবন বাঁচতে রক্ত নেওয়ার প্রয়োজন হয়। তবে রক্ত নেওয়া ও দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু বিষয় খেয়াল রাখা জরুরি। তা না হলে ওই রক্ত আপনার জীবন বাঁচানোর পরিবর্তে আমার মৃত্যুঝুঁকি বাড়াতে পারে।

 

রক্ত দেয়া ব্যক্তিকে সুস্থ থাকতে হবে। হার্টের অসুখ, স্ট্রোক, উচ্চ রক্তচাপ, বিভিন্ন সংক্রামক ব্যাধিসহ কোনো সমস্যা থাকলে রক্ত দেওয়া যাবে না। এ ছাড়া ডায়াবেটিক রোগীরা শুরুর দিকে দিতে পারলেও পরে দেওয়াটা ঠিক হবে না।

 

১৯৮০ সাল পর্যন্ত ইনসুলিন তৈরি হতো গরু থেকে, এটা নিয়ে অনেক কমপ্লিকেশন তৈরি হয়েছিল তাই ইনসুলিন নেয়া ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের রক্ত দান করা নিষেধ ছিল। বভাইন বা গরুর থেকে ইনসুলিন তৈরি হয় না তাই সেই সমস্যা মুক্ত হয়েছে।

 

পৃথিবী যে লক্ষে এগিয়েছে তা হল প্রথমে নিরাপদ রক্ত পরিসঞ্চালন এবং দ্বিতীয়ত স্বেচ্ছায় রক্তদাতার সংখ্যা বৃদ্ধি করা। রক্তদাতার সংখ্যা বৃদ্ধি করতে গেলে রক্তদাতা বাতিলের তালিকা ছোট করতে হবে।

 

ফলাফল হল এমন কোনো গাইডলাইন দেখানো সম্ভব হবে না যেখানে বলা আছে ডায়াবেটিসে আক্রান্তরা রক্ত দিতে পারবে না যদি অন্য সমস্যায় না ভুগেন সেই মুহূর্তে (রক্তদান কালে)।

 

এ খন প্রশ্ন হলো ডায়াবেটিস রোগীরাও কি রক্ত দিতে পারেন?

 

সুস্থ অবস্থায় রক্তে শর্করার মাত্রা স্বাভাবিক থাকলে রক্ত দেয়া যাবে। এছাড়া টাইপ ওয়ান (রক্তে ইনসুলিন থাকে না) ও টাইপ টু (রক্তে ইনসুলিন শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না) উভয় ক্ষেত্রেই রক্ত দেওয়া সম্ভব।

 

আর রোগী যদি পূর্বে বেভিন ইনসুলিন নিয়ে থাকেন তবে রক্ত দেয়া যাবে না।

 

এছাড়া ডায়বেটিসের কারণে যদি চোখ, রক্ত জালিকা বা কিডনির ক্ষতি না হয়ে থাকে তাহলে কোনো জটিলতা ছাড়াই রক্ত দিতে পারেন। তবে রক্ত দেয়ার আগে ও পরে অবশ্যই কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। আসুন জেনে নেই রক্ত দেয়ার আগে ও পরে কী করবেন?।

 

রক্ত দেয়ার আগে কী করবেন?

 

পর্যাপ্ত ঘুম, পুষ্টিকর খাবার ও পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে।

 

রক্ত দেওয়ার পরে কী করবেন?

 

রক্তে শর্করার মাত্রা সব সময় পরীক্ষা করা, পুষ্টিকর খাবার খাওয়া ও ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

 

 

সৌজন্যে : যুগান্তর

 

বিনোদন

আর্কাইভ

ডিসেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১