প্রচ্ছদ

যেসব ভুলে ডায়েটেও ওজন কমে না

Eurobanglanews24.com

ওজন কমানোর জন্য স্বাস্থ্য সচেতন মানুষের কায়দা-কসরতের কোনো শেষ নেই। ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে আপেল সাইডার ভিনেগার খাওয়া, শুধু পানি আর ফলের রস পান করে ১৬ ঘণ্টা কাটানো থেকে শুরু করে তিন দিনে পাঁচ কেজি ওজন কমানোর মতো নানাবিধ টোটকার শরণাপন্ন হয়ে দিনের পর দিন কাটিয়ে দিচ্ছেন তারা। ভোজনরসিক বাঙালি হয়ে এই ত্যাগ স্বীকারের পরও ডায়েটের কাঙ্ক্ষিত ফল না পেয়ে অনেকের কপালেই চিন্তার ভাঁজ পড়ে যায়।

 

বিবিসি অনলাইন সম্প্রতি একটি গবেষণার ফলাফল প্রকাশ করেছে, যাতে জানা গেছে কেন ডায়েট করেও অনেকের ওজন কমে না। ডায়েটের এই ভুলগুলো এড়িয়ে চললেই কার্যকরী ডায়েট পরিকল্পনায় কাঙ্ক্ষিত ওজনের অধিকারী হওয়া সম্ভব।

 

অন্য কারও ডায়েট মেনে চলছেন আপনি

 

পুষ্টিবিদ সোফি মেডলিন বলেন, ইনস্টাগ্রাম বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কারও পরামর্শ দেখে ডায়েট শুরু করে দেন অনেকে। ‘এই খাবার খেয়ে ওর যদি কাজ হয়, আমার কেন হবে না’- এই তত্ত্ব মেনে অন্য একজনের ডায়েট পরিকল্পনা অনুসরণ করা একেবারেই ভুল একটি সিদ্ধান্ত। প্রতিটি মানুষের জিনগত বৈশিষ্ট্য আলাদা, জীবনধারা আলাদা, শারীরিক গঠন আলাদা। একজনের জন্য যে রীতি কার্যকর হবে, আপনার জন্যও তা ফলপ্রসূ হবে- এটি ভুল ধারণা।

 

নতুন গবেষণায় দেখা গেছে, একই খাবার খেয়ে অভিন্ন যমজদের শারীরিক বৃদ্ধিও আলাদা হতে পারে। একই খাদ্যাভ্যাস অনুসরণ করে যমজদের ওজন কমার ক্ষেত্রেও ভিন্নতা থাকতে পারে। এ কারণেই পুষ্টিবিদেরা উচ্চতা, ওজনসহ নানা শারীরিক উপসর্গের কথা মাথায় রেখে প্রত্যেককে আলাদা আলাদা ডায়েট পদ্ধতির পরামর্শ দেন।

 

আপনার জীবনযাপন রীতি এবং আপনি কী খেতে পছন্দ করেন- এ দুটি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দিয়ে ডায়েট পরিকল্পনা করা হলে তা দীর্ঘ মেয়াদে ওজন ঠিক রাখতে সহায়তা করে বলে গবেষণাটিতে জানা গেছে। সোফি বলেন, ‘ডায়েট করছেন বলে জন্মদিনের কেক বা ভারী কোনো খাবার খাওয়াই যাবে না, এমনটা কিন্তু ঠিক নয়। মাঝেমধ্যে একটু-আধটু পছন্দের খাবার না খেলে ডায়েট আপনার জন্য বিভীষিকা হয়ে দাঁড়াবে। কাজেই নিজের পছন্দের কথা জানিয়ে, পুষ্টিবিদের পরামর্শে ডায়েটের পরিকল্পনা করুন।’

 

আর্কাইভ

জুলাই ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১