প্রচ্ছদ

অফিস তো করতে হবে, তাই হেঁটেই যাচ্ছি

Eurobanglanews24.com

ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ তিন সড়কে রিকশা বন্ধের প্রতিবাদে দ্বিতীয় দিনের মতো সড়ক অবরোধ করছেন রিকশাচালকরা।

এতে বাড্ডা, রামপুরা, মালিবাগ ও খিলগাঁও সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ কর্মসূচি শুরু করেন। এরপর থেকে ওই এলাকায় বাস, সিএনজি অটোরিকশা, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাসসহ কোনো যানবাহন চলছে না।

শিক্ষার্থীদের হেঁটে স্কুল, কলেজে যেতে দেখা গেছে। এই এলাকার অফিসগামীরাও অফিস যাচ্ছেন হেঁটে।

পথচারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছ, রাস্তায় বের হওয়ার আগে তারা জানতেন না এই এলাকায় অবরোধ হবে। বাসা থেকে বের হয়ে দেখেন রাস্তায় গাড়ি নেই। তাই গন্তব্যে পৌঁছাতে হাঁটা ছাড়া কোনো উপায় নেই।

 

বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত আব্দুর রহমান নামে একজন বলেন, রাস্তায় বের হয়ে অবাক হয়ে গেছি। রাস্তায় কোনো গাড়ি নেই। অফিস তো করতে হবে। তাই হেঁটেই যাচ্ছি।

জামিলুর রহমান নামে একজন বলেন, গাড়ি নেই পা তো আছে। পা-ই শেষ ভরসা আমাদের।

রাস্তা অবরোধের বিষয়ে রিকশাচালকরা বলছেন, আজ দুপুর ১টা পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন। এরপরও সিটি করপোরেশর তাদের সিদ্ধান্ত না পাল্টালে বুধবার থেকে লাগাতার আন্দোলনে যাবেন তারা।

বাড্ডা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বিক্ষেভকারীদের বুঝিয়ে সড়ক খালি করানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আমরা সতর্ক রয়েছি।’

সংশ্লিষ্ট কয়েকটি থানায় যোগাযোগ করে জানা গেছে, ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা করছেন।