প্রচ্ছদ

হজে যেতে যেসব প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিবেন

Eurobanglanews24.com

এ বছর বাংলাদেশ থেকে হজে যাচ্ছেন সোয়া লাখেরও বেশি ধর্মপ্রাণ মুসলমান। এরই মধ্যে ৪১৯ জন হজযাত্রী নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রথম ফ্লাইট বিজি ৩০০১ সৌদি আরবের উদ্দেশ্য ছেড়ে গেছে।

 

বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা ১০ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে প্লেনটি উড্ডয়ন করে। যারা হজে যাবেন বা যাচ্ছেন তারা হয়তো এরই মধ্যে প্রস্তুতি নিয়েছেন। এ প্রস্তুতির অন্যতম অনুষঙ্গ হল হজ পালন ও সৌদি আরবে থাকা-খাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ করা।

 

 

 

রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মার্কেটে পেতে পারেন হজ পালনের প্রয়োজনীয় সামগ্রী।

 

বায়তুল মোকাররম মার্কেটে যেসব সামগ্রী মিলছে তা ইন্দোনেশিয়া, তুর্কি, চায়নাসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা। এ ছাড়া দেশীয় সামগ্রীও আছে।

 

এখানে এহরাম বাঁধার টাওয়াল বা কাপড় সেটের দাম পড়বে ৫০০ থেকে ৫ হাজার ৫০০, তুর্কি স্পেশাল টাওয়াল ও কাপড় সেট ৭ হাজার থেকে ৭ হাজার ৫০০, এহরাম বাঁধার বেল্ট ১০০ থেকে ১ হাজার, মিনাব্যাগ ৬০ থেকে ৪৫০, পাসপোর্ট ব্যাগ ৩০ থেকে ৬০, জুতা রাখার ব্যাগ ১০ থেকে ২০, পাথর রাখার ব্যাগ ১০ থেকে ২০, প্লাস্টিক জায়নামাজ ২০০ থেকে ৩০০, কাটার বক্স ২০০ থেকে ৫০০, হজ গাইড ৮০ থেকে ৩০০ টাকা।

 

সৌদি আরববিষয়ক ভ্রমণ বই ৯৬, কাঁধের ব্যাগ ৫০ থেকে ১০০, হিজাব ১৫০ থেকে ৭০০, মহিলা এহরাম সেট ৮০০ থেকে ৪ হাজার ৫০০, মহিলাদের চুল বাঁধার টুপি ৫০ থেকে ১৫০, হাত মোজা ও পা মোজা ৫০ থেকে ২০০, হাওয়ার বালিশ ১৫০ থেকে ১ হাজার, বোডিং হোল্ডার ৩০০ থেকে ১ হাজার ২০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

 

 

 

সানক্যাপ ১০০ থেকে ২০০, পায়ের তাবেয়া ২০০, চামড়ার মোজা ৪০০ থেকে ১ হাজার, তায়াম্মুমের মাটি ৫০ থেকে ১০০, মিসওয়াক ২০ থেকে ৫০, সালোয়ার ২৫০ থেকে ৭৫০, ছাতা ১৫০ থেকে ৬০০, ছোট কোরআন শরিফ ১০০ থেকে ৪৫০ টাকা মিলছে।

 

এছাড়া হজে যেতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী যেমন- গন্ধবিহীন সাবান, শ্যাম্পু, ভ্যাসলিন, পাঞ্জাবি, লুঙ্গি, গামছা, টাওয়াল, জুতা, টুপি, তসবি, আতর, বোরকা ইত্যাদি বায়তুল মোকাররম মার্কেটে পাওয়া যায়।

 

আর্কাইভ

জুলাই ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জুন    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১